এক্সপির ডেস্কতপের আইকনগুলিকে ট্যিডী স্মল লিস্ট ভ্যিউতে ডিস্পলে করা

Notice : – টাইম এবং অদ্যার কিছু প্রবলেমের কারনে ওয়ার্ডপ্রেস্যের এই ব্লগটিতে আমি কমপ্লিট পোস্ট লিখতে পারছি না। এখানে পোস্ট হেডলাইনের সঙ্গে সামান্য কিছু কনটেন্ট টাইপ করা আছে এবং কমপ্লিট পোস্টের লিঙ্ক হিসাবে মাই বিট্রীক ব্লগের লিঙ্ক প্রোভাইড করা আছে। এই ম্যাটারটির জন্য সমস্ত ভিসিটরদের কাছে স্যরি।

ডেস্কটপে ড্যিসপ্লে হওয়া ব্যাল্কী লার্জ আইকনগুলির কারনে ডেস্কটপকে দেখতে  ভাল লাগে না।যদি ডেস্কটপে অনেক বেশি পোগ্রাম সর্টক্যাট বা আদ্যার শর্টক্যাট থাকে তবে লুকের সঙ্গে সঙ্গে পিসিও স্লো হয়ে থাকে।আমার যতদুর আইডিয়া উইন্ডোস ভিস্তাতে ডেস্কটপের শর্টক্যাট গুলির সাইজ চেঞ্জ করার অপশ্যন রয়েছে,কিন্তু এক্সপি ইউস্যাররা এই ফেস্যালিটীটি পায় না।একটি স্মল ইউটিল্যিটীর মাধ্যমে এক্সপি ইউস্যাররা তাদের ডেস্কটপের ড্যিসপ্লে হওয়া লার্জ আইকনগুলিকে ট্যিডি বা স্মল লিস্ট ভ্যিউতে কনভার্ট করতে পারবে।এই স্মল এপ্লিকেশনটি হচ্ছে Deskview,নিচের লিঙ্ক থেকে এপ্লিকেশ্যনটি ডাউনলোড করে রান করলেই হবে।এটিকে ইনস্টলেশনের কোন দরকার নেই।যখনই শর্টক্যাটগুলিকে স্মল আইকনে চেঞ্জ করার দরকার এটিকে রান করলেই হবে। Read the rest of this entry »

Advertisements

উইন্ডোস এক্সপিতে ম্যানূয়ালী System Restore Point তৈরী করা [কীভাবে]

001আমরা কম্পিউটারে এভ্রিডে কিছু এক্সপ্যরিমেন্ট করে থাকি,যেমন বিভিন্ন দরকারে বিভিন্ন রকম সফটওয়্যার ট্রাই করে থাকি।কোন থার্ড-পার্টী এপ্লিকেশন ট্রাই করার সময় পিসিতে র‌্যেজ্রস্ট্রী এবং আরও অনান্য চেঞ্জেস হয়ে থাকে, যার ফলে যে কোন রকমের প্রবলেম হতে পারে।এক্সপিতে এই ম্যাটারটির জন্য একটি গ্রেট ফীচার রয়েছে System Restore Point।যার মাধ্যমে কোন রকম প্রবলেম হলে পিসিকে আবার প্রবলেমের প্রিভিয়াস স্টেজে ব্যাক করা(কোন রকম ডাটা লুস্যিং ছাড়া) এবং প্রবলেম থেকে ফ্রীডম পাওয়া যায়।কম্পিউটারে কোন এপ্লিকেশন বা বড় রকমের চেঞ্জেস করার আগে এর System Restore Point তৈরী করে রাখা দারুন কাজের।পিসিতে চেঞ্জেসের মাধ্যমে কোন প্রবলেম ফেস Read the rest of this entry »

Backgrounder দিয়ে উইন্ডোসের ব্যাকগ্রাউন্ডে ইমেজ় প্লেস করা

01.jpgকোন রকম থার্ড পার্টী এপ্লিকেশন ছাড়া Windows এক্সপির ব্যাকগ্রাউন্ড ক্যালার চেঞ্জ করার প্রস্যেস রয়েছে এই ব্যাপারে একটি পোস্ট আগে লিখেছিলাম।ব্যাকগ্রাউন্ড ক্যালার চেঞ্জ করার প্রস্যেস থাকলেও একটি প্রবলেম রয়েছে এখানে অনলি ব্যাকগ্রাউন্ড ক্যালার চেঞ্জ করা যায় কিন্তু যদি পছন্দের ইমেজ ব্যাকগ্রাউন্ডে প্লেস করার থাকে তাহলে উপায় নেই😦বেশ কিছুদিন আগে ব্যাকগ্রাউন্ড ক্যালার চেঞ্জ এবং ইমেজ প্লেস করার জন্য Ieshwiz এবং Windowpaper এই দুটি এপ্লিকেশনের কথা লিখেছিলাম। Read the rest of this entry »

Disable Startup এর মাধ্যমে উইন্ডোস 7,Vista এবং Xp’র সার্টাআপ এপ্লিকেশন ডীস্যাবেল করা।

সিস্টেম অন হবার সঙ্গে সঙ্গে পিসিতে ইনস্টল থাকা কিছু এপ্লিকেশন নিজে থেকেই সিস্টেমের সঙ্গে রান করে।স্টার্ট-আপ পোগ্রামের এই ফ্রাসস্ট্রেটিং ম্যাটারটির বিষয়ে আপনার এক্সপ্যারিয়েন্স থাকবে।রিয়েলী এটি একটি ফ্রাসস্ট্রেটিং ম্যাটার,এই সমস্ত স্টার্ট-আপ পোগ্রামের কারনে কম্পিউটার ফুল মুডে চালু হতে টাইম লাগে।ফলে পিসি অন করার পরেও বেশ কিছুক্ষন এর সামনে বসে থাকতে হয়।সমস্ত প্রোগ্রামগুলি পুরোপুরী রান হবার পরেই কম্পিউটার পার্ফেক্টভাবে ইউস করা যায়। এক্সপির সার্ট-আপ প্রোগ্রামগুলির ব্যাপারে একটি পোস্ট আগে লিখেছিলাম।কিছু এপ্লিকেশন আছে যেগুলি  কোন রকম অয়ার্নিং ম্যাসেজ  ছাড়াই বার বার স্টার্ট-আপ পোগ্রামের সঙ্গে এড হয়ে যায়। Disable Startup Read the rest of this entry »

Isteg দিয়ে jpg ইমেজের ইনসাইডে ফাইল হাইড করা

01.jpgjpg ইমেজের ভিতরে ফাইল হাইড করার জন্য আগে একটি প্রসেস্যের কথা লিখেছিলাম।প্রস্যেসটি কাজের হলেও একটু লম্বা ছিল।এখানে আর একটি ক্লেভার ট্রিক খুঁজে পেলাম যেটি হচ্ছে Isteg,যদি ইস্যিলী কোন ইমেজের ভিতরে ফাইল হাইড করার থাকে তবে Isteg একটি র্পাফেক্ট টূল।যদিও এপ্লিকেশনটি ফাইলকে এইক্রাইপ্ট বা প্যাসওয়ার্ড প্রটেক্ট করে না কিন্তু ইস্যিলী ফাইল প্রটেক্ট করার জন্য এটি একটি কাজের মেথড। Isteg এর মাধ্যমে মাত্র থ্রী-স্টেপে যে কোন ফাইল প্রটেক্ট করা যাবে।এটি একটি অপেন সোর্স এপ্লিকেশন তাই ইনস্টলেশনের কোন দরকার নেই।এপ্লিকেশনটি রান করে ফার্স্ট অপশন Image Read the rest of this entry »

R-Enable এর মাধ্যমে উইন্ডোসের রেজ্রেস্ট্রী এডিটর,cmd,task ম্যানেজার,Run এবং ফোল্ডার অপশন রিস্ট্রোর করা

1 বেশিরভাগ টাইমেই কম্পিউটার ভাইরাস,ত্রোজন এসবের মাধ্যমে ইনফেক্টেট হলে রেজ্রেস্ট্রী এডিটর, cmd,task ম্যানেজার,Run এবং ফোল্ডার অপশন ডিস্যাবেল হয়ে যায়।ইনফেক্টেট পিসিতে কোন এন্টিভাইরাস দিয়ে স্ক্যান করে এগুলিকে ডিলিট মারলেও আগের কোডের এবসেন্টে রেজ্রেস্ট্রী এডিটর, cmd,task ম্যানেজার,Run এবং ফোল্ডার অপশন ডিস্যাবেল হয়ে যায়।ম্যানুয়ালী এই সমস্ত রেজ্রেস্ট্রী কোডগুলি ফাইন্ড করে R-Enable করা একটি চুনোতির কাজ। R-Enable উইন্ডোসের একটি হ্যান্ডী এপ্লীকেশন যার মাধ্যমে সহজেই রেজ্রেস্ট্রী এডিটর, cmd,task ম্যানেজার,Run এবং ফোল্ডার অপশন এগুলিকে রি-এন্যাবেল করা যাবে। Read the rest of this entry »

iCalcy – iPhone ক্যালকুলেটর উইন্ডোস 7,ভিস্তা এবং xp এর জন্য

1উইন্ডোস xp ব্যাবহারকারীদের ক্যালকুলেটের দারুন স্মল যার ফলে ব্যাবহার করতে দারুন প্রবলেম হয়ে থাকে।আমার আগের একটি টিপসে e-calcy এর ব্যাপারে লিখেছিলাম যেটিকে উইন্ডোস xp ব্যাবহারকারীরা অল্টারনেটিভ ক্যালকুলেটর হিসাবে ব্যাবহার করা যায়।এবার আর একটি পোর্টবেল কুল এপ্লিকেশন খুঁজে পেলাম যেটি iCalcy।iCalcy একটি ক্যালকুলেটর যার লুক এক্সাক্টলি iphone 3G এবং iPod টাচ ক্যালকুলেটেরের মত।ইউস করার সময় এটিকে ২ রকমভাবে ইউস করা যায় portrait এবং landsceape মুডে। portrait অরিয়েনটশনেও সমস্ত ফ্যানশান সার্পট করে ইনক্লুডিং + – x এছাড়াও মেমরী এবং sign ক্যাপাবিলিটী আছে।এটিকে উইন্ডোস 7,ভিস্তা এবং xp এর জন্য ইউস করা যাবে। Read the rest of this entry »